রেডিওতে ভাল উপস্থাপনার চাবিকাঠি

লাইভ সাময়িক ঘটনাবলীর অনুষ্ঠান সফলভাবে উপস্থাপন করতে হলে খবর ফলো করা, স্টোরি সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা থাকা, সহজ ভাষায় সাবলীল ভঙ্গিতে সে খবর শ্রোতার কাছে পৌঁছে দেওয়ার দক্ষতা অর্জন করতে হবে।

প্রতিদিন সম্পাদকীয় বৈঠকের সময় ঠিক করা হয় দিনের এ্যাজেন্ডা কী হবে, অনুষ্ঠানে কোন্ বিষয়গুলো থাকবে এবং কোন্‌ সংবাদগুলো কীভাবে ফোকাস করা হবে । কাজেই উপস্থাপকের সেই বৈঠকে থাকাকে একান্ত জরুরি বলে মনে করেন বিবিসি বাংলার সিনিয়ার প্রযোজক মানসী বড়ুয়া।

দিনের স্টোরি নিয়ে যেহেতু এই বৈঠকে বিস্তারিত আলোচনা হয় তাই এই বৈঠকে থাকলে কোন্ তথ্যগুলো স্টোরির কিউতে থাকা আবশ্যক, সাক্ষাৎকার নিতে হলে কোন্ প্রশ্নগুলো করা জরুরি তা মাথায় রাখা সহজ হয়।

“খবরের পটভূমি এবং ঘটনাপ্রবাহ না জানলে উপযুক্ত প্রশ্ন করা যাবে না । এটা প্রস্তুতির একটা বড় অংশ। সাময়িক ঘটনার অনুষ্ঠান উপস্থাপন করতে হলে সংবাদের ভেতরে থাকতে হবে- নিয়মিত খবর কাগজ পড়া, রেডিও শোনা, টিভি দেখা, সংবাদ ফলো করা, বিশ্লেষণ শোনা এগুলো উপস্থাপক হিসাবে আমার কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।”

উপস্থাপনার ভাষা হওয়া উচিত সহজ – যা বলছেন সেটা মানুষকে বুঝতে হবে।

“এক বৈজ্ঞানিক গবেষণায় দেখা গেছে মানুষের মস্তিষ্ক ২৮ সেকেন্ডের মত তথ্য একসঙ্গে নিতে পারে । কাজেই খুব লম্বা বাক্য, কঠিন শব্দ ব্যবহার করলে বাকের শুরু ও শেষ কোথায় সে সম্পর্কে মানুষ খেই হারিয়ে ফেলতে পারে।”

বইয়ে ছাপার অক্ষরে লম্বা বাক্য না বুঝলে ফিরে পড়ার সুযোগ থাকে – রেডিওতে শোনার সুযোগ একবারই । তাই লম্বা বাক্য এবং প্রচুর তথ্য দিয়ে মানুষকে ভারাক্রান্ত করা উচিত নয় । বাক্য ভেঙে দিয়ে ছোট বাক্য গঠন করলে একই তথ্য মানুষ সহজে মাথায় নিতে পারবে ।

ভাল উপস্থাপক হতে গেলে সঠিক উচ্চারণ নিশ্চিত করুন এবং উপস্থাপনার ভঙ্গী সাবলীল রাখুন। সংবাদমাধ্যমে সাধারণত আমরা প্রমিত বাংলাই ব্যবহার করি।

“সঠিক উচ্চারণ ব্যক্তিগত গ্রহণযোগ্যতার জন্যও দরকার, যে প্রতিষ্ঠানে আমি কাজ করি তার রেপুটেশনের জন্যও এটা প্রয়োজন। শ্রোতারা মনে করে বিবিসি সঠিক উচ্চারণে সম্প্রচার করে। শব্দের উচ্চারণে যেন জড়তা না থাকে।”

প্রয়োজনে বাংলা একাডেমির উচ্চারণ অভিধান দেখতে পারেন, সহকর্মী যারা জানেন তাদের কাছে জেনে নিতে পারেন, বিদেশি শব্দের নামের উচ্চারণের জন্য বিবিসির নিজস্ব নির্দেশিকা রয়েছে – প্রয়োজনে সেটাও দেখতে পারেন।

অপ্রত্যাশিত কিছু ঘটলে কীভাবে তৈরি থাকবেন? মানসী বড়ুয়া বলছেন সবকিছু প্রস্তুতি নিয়ে স্টুডিওতে যাবার পরেও শেষ মুহূর্তে হঠাৎ বড় কোনো খবর আসতে পারে। তখন সব ফেলে দিয়ে সেই খবরই আপনার প্রধান খবর হয়ে উঠতে পারে। তখন হয়ত লেখারও সময় পাবেন না। তাই সেই আকস্মিক পরিস্থিতি সফলভাবে মোকাবেলা করতে পারবেন তখনই যদি সবসময় সংবাদের মধ্যে থাকেন, সংবাদ ফলো করেন।

বিশ্বে কোথায় কী ঘটছে তা জানা থাকলে এধরনের পরিস্থিতিতে উপস্থাপনার কাজটা তুলনামূলকভাবে সহজ হতে পারে। চট করে মাথা থেকে কিছু বলতে পারার আর্ট রপ্ত করা- উপস্থিত বুদ্ধি দিয়ে উপস্থাপনার কাজ করতে পারার দক্ষতা আয়ত্ত করা দরকার।

সুত্রঃ বিবিসি একাডেমি

সম্পর্কিত লিংক

Leave a Reply